বাংলাবাজারে পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ

পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানি করার অভিযোগে পুরান ঢাকার বাংলাবাজার এলাকায় বিক্ষোভ করেছেন সদরঘাট গার্মেন্টস এক্সোসারিজ ব্যবসায়ী সমিতির সদস্যরা। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১১ টার দিকে বাংলাবাজার ফুট ওভার ব্রিজের নিচে শতাধিক ব্যবসায়ী বিক্ষোভ করেন। এসময় আধ ঘন্টাব্যাপী সদরঘাটে যান চলাচল বন্ধ থাকে। পরে পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ব্যবসায়ী নেতাদের সাথে বৈঠক করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর সোয়া ১১ টার দিকে বাংলাবাজর মল্লিকা টাওয়ারের নিচে বহিরাগত এক ব্যবসায়ীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দায়িত্বরত পুলিশ। এসময় সদরঘাট গার্মেন্টস এক্সোসারিজ ব্যবসায়ী সমিতির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী কুদ্দুস পুলিশের কাছে জিজ্ঞাসাবাদ করার কারন জানতে চান।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কুদ্দুসকে অশ্রাব্য ভাষায় গালি দেয় পুলিশ কর্মকর্তারা। পরে সমিতির অন্যন্য সদস্যরা পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানি করার অভিযোগে বিক্ষোভ করেন। এসময় সদরঘাটগামী ও সদরঘাট থেকে ছেড়ে আসা সব যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

দুপুর ১২ টার দিকে পুলিশের ওয়ারী জোনের এডিসি মইনুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান, এসি নুরল আমিন এবং সূত্রাপুর থানার ওসি খলিলুর রহমানসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসে ব্যবসায়ী নেতদের সাথে বৈঠকের আশা¦াস দিলে বিক্ষোভ তুলে নেন ব্যবসায়ীরা। সাড়ে ১২ টার দিকে সদরঘাট গার্মেন্টস এক্সোসারিজ ব্যবসায়ী সমিতির কাযালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এডিসি মইনুল বলেন, অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে পুংখানুপুংখ তদন্ত করা হবে। তিনি যতটুকু অপরাধ করেছেন ততটুকু শাস্তি পাবেন। এডিসি মেহেদী পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে ভুলবোঝবুঝির অবসান করার আহবান জানান।

এ বিষয়ে সদরঘাট গার্মেন্টস এক্সোসারিজ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রাইসুল ইসলাম বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবেনা জানিয়ে আমাদেরকে আশ্বাস দিয়েছেন পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। যদি ঘটে তাহলে আমরা লিখিত অভিযোগসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করব। সাধারন সম্পাদক আবদুস সালাম বলেন, এর আগে বিভিন্ন সময় পুলিশের কাছে হয়রানির শিকার হয়েছেন একাধিক ব্যবসায়ী। এসব ঘটনায় ক্ষিপ্ত ব্যবসায়ীরা আন্দোলনে নামেন। বৈঠকে গদরঘাট গার্মেন্টস এক্সোসারিজ ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুব হোসেন সহ অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।

Shortlink:

Q&A

You must be logged in to post a comment Login