মশা মারার ফাঁদ

মশার যন্ত্রণা কারোই ভাল লাগে না। মশার হাত থেকে বাচাঁর বিভিন্ন ধরনের উপকরণ ব্যবহার করা হয়। মশার হাত থেকে বাঁচার জন্য মশারি ও কয়েল বেশ পুরনো। এছাড়া এখন বাজারে নানা ধরনের মশা নিধনের যন্ত্র বের হয়েছে। যে যন্ত্রগুলো একটু ব্যয়বহুল।

এর মধ্যে অনেকেই আছেন কয়েলের গন্ধ সহ্য করতে পারেন না আবার মশারির মধ্যেও ঘুমাতে পারেন না। তাদের জন্যই আমরা নিয়ে এসেছি মশাকে খাঁচায় পোরার বুদ্ধি। এমন একটি খাঁচা বানানো হবে, যাতে কিনা মশা স্বেচ্ছায় গিয়ে ঢুকবে অথচ বানাতে নেই কোনো ঝামেলা। এই মশার ফাঁদ এক কোণায় রেখে দিলেই আপনার বাসা থাকবে মশামুক্ত। এখন দেখা যাক কীভাবে মশাকে খাঁচায় পোরানো যায়।

মশার খাঁচা বানানোর জন্য যা যা লাগবে:

১.দেড় থেকে দুই লিটারের প্লাস্টিকের বোতল
২.পানি এক কাপ
৩.ব্রাউন সুগার এক চতুর্থাংশ*
৪. ১ গ্রাম ইস্ট**

* ব্রাউন সুগার কোনো মুদির দোকানে অথবা রান্নার মসলা, সস পাওয়া যায় এমন দোকানে খোঁজ করলে পাবেন।
**ইস্ট হচ্ছে মদ বানানোর একধরনের অনুজীব। এগুলো বাজারে ‘ইস্ট কেক’ হিসেবে অথবা বড়ি আকারে বিক্রি হয়। বিশেষ করে বেকারি অর্থাৎ কেক-রুটি-বিস্কুটের কারখানায় এসব ব্যবহৃত হয়। সেসব কারখানা অথবা রাসায়নিকের দোকানে খোঁজ করতে পারেন।

যেভাবে বানাবেন
প্লাস্টিকের বোতলটি ২ ভাগ করে কেটে নিন। পানির সঙ্গে ব্রাউন সুগার মিশিয়ে মিশ্রণটি রেখে দিন একটু চাইলে হাল্কা কুসুম গরম পানি নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে ঠাণ্ডা করুন পুরোপুরি। ঠাণ্ডা হলে বোতলের তলায় ঢেলে দিন। ইস্ট ঢেলে দিন। ইস্ট কার্বন ডাই অক্সাইড তৈরি করবে, যা কিনা মশাদের জন্য খুবই আর্কষনীয়। এবার বোতলের মুখ বা ফানেল অংশটি বোতলের ওপর ছবির মত উল্টো করে বসান। ইচ্ছা হলে মজবুত করার জন্য টেপ দিয়ে আটকিয়ে দিতে পারেন। এবার বোতলের নিচের অংশটি কালো কিছু দিয়ে মুড়িয়ে দিন। কালো টেপ দিয়েও মুড়িয়ে দিতে পারেন। কেননা কালো রঙ মশাদের আর্কষন করে। অন্তত ২৪ ঘন্টা ইস্টকে ফারমেনট হবার সুযোগ দিন। পানিতে বুদ বুদ বা ফেনা উঠলে বুঝবেন যে হয়ে গেছে।

ফাঁদটি এবার রেখে দিন আপনার ঘরের কোথাও যেখানে বেশি মানুষের সমাগম সেখানে রাখলে ভাল হয়। তাহলে দেখবেন কেমন করে এ ফাঁদে আটকা পড়ে। এই ব্যবস্থায় ভাল ফল পাওয়ার জন্য ২ সপ্তাহে পরপর পা দিন, চিনি ইস্টের মিশ্রণটি বদলে নিন।

Shortlink:

Q&A

You must be logged in to post a comment Login