শনিবারের কথা রোববারেই ভুলে গেলেন লতিফ সিদ্দিকী

গত ২৭ সেপ্টেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের ম্যানহাটনস্থ ম্যারিয়ট মার্কি হোটেলে প্রবাসীদের দেয়া প্রধানমন্ত্রীর সার্বজনীন নাগরিক সংবর্ধনা সভায় ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী ও প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় একই মঞ্চে পাশাপাশি বসে খোশ গল্পে মেতেছিলেন। কিন্তু ২৪ ঘন্টায় সব ভুলে পরদিন রোববারের একটি অনুষ্ঠানে নিজের দম্ভোক্তি দেখিয়ে অবলীলায় বললেন, ‘আপনারা কথায় কথায় জয় ভাইকে টেনে আনেন কেন? জয় কে?’

রোববার বিকেলে নিউ ইয়র্কে জ্যাকসন হাইটসের একটি হোটেলে স্থানীয় টাঙ্গাইল জেলা সমিতির দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী ডাক, তার ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী তার বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীপুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করেন। তিনি প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্দেশ করে বলেন, ‘কথায় কথায় আপনারা জয়কে টানেন কেন। ‘জয় ভাই’ কে। জয় বাংলাদেশ সরকারের কেউ নন। তিনি কোনো সিদ্ধান্ত নেয়ারও কেউ নন।’

তিনি স্থানীয় সাংবাদিক ও ইসলামের অন্যতম স্তম্ভ হজ সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্যও করেছেন। তার এ ধরনের বক্তব্যে মোসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ায় নিউ ইয়র্কসহ বিশ্বের সকল প্রবাসীদের মাঝে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

পবিত্র হজ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি কিন্তু হজ আর তাবলিগ জামাতের ঘোরতর বিরোধী। আমি জামায়াতে ইসলামীরও বিরোধী। তবে তার চেয়েও হজ ও তাবলিগ জামাতের বেশি বিরোধী।’ তিনি বলেন, ‘এ হজে যে কত ম্যানপাওয়ার নষ্ট হয়। হজের জন্য ২০ লাখ লোক আজ সৌদি আরবে গিয়েছে। এদের কোনো কাম নাই। এদের কোনো প্রডাকশন নাই। শুধু রিডাকশন দিচ্ছে। শুধু খাচ্ছে আর দেশের টাকা দিয়ে আসছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘এভারেজে যদি বাংলাদেশ থেকে এক লাখ লোক হজে যায় প্রত্যেকের পাঁচ লাখ টাকা করে ৫০০ কোটি টাকা খরচ হয়।’

হজ কীভাবে এসেছে এর ব্যাখ্যা দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘আব্দুল্লাহর পুত্র মোহাম্মদ চিন্তা করল এ জাজিরাতুল আরবের লোকেরা কিভাবে চলবে। তারাতো ছিল ডাকাত। তখন একটা ব্যবস্থা করলো যে আমার অনুসাসীরা প্রতিবছর একবার একসাথে মিলিত হবে। এরমধ্য দিয়ে একটা আয়-ইনকামের ব্যবস্থা হবে।’

তাবলিগ জামাতের সমালোচনা করে আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী বলেন, ‘তাবলিগ জামাত প্রতি বছর ২০ লাখ লোকের জমায়েত করে। নিজেদেরতো কোনো কাজ নেই। সারা দেশের গাড়িঘোড়া তারা বন্ধ করে দেয়।’ টেলিভিশন ‘টক শো’রও কঠোর সমালোচনা করেন আলোচিত এই মন্ত্রী। বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে তিনি বারবার উত্তেজিত হয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। এক সাংবাদিককে ধমক দিয়ে বলেন, ‘আমি কি তোমার মতো কথা বলবো। আমি আমার মতো কথা বলবো। তুমি এখানে আসলা কেন, তোমাকে কে বলেছে আসতে?’

ইসলামের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হজ সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্যের পর স্থানীয় প্রবাসীদের মধ্যে কড়া প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। সংবাদটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ক্ষুব্ধ প্রবাসীরা মন্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

এদিকে লতিফ সিদ্দিকীকে মন্ত্রিসভা থেকে অপসারণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্ক থেকেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

Shortlink:

Q&A

You must be logged in to post a comment Login