সেক্সে পিছিয়ে ভারতীয় পুরুষরা, এগিয়ে ব্রিটিশ মহিলারা

mens-healthউল্লেখযোগ্য বেশ কিছু ক্ষেত্রে ভারতীয়রা এগিয়ে থাকলেও, এ বার ভারতীয় পুরুষরা এমন একটা বিষয়ে সবার শেষে থাকলেন যা নিয়ে কেউ মুখ খুলতে চাইবেন না। ‘ম্যানস হেলথ’ জনপ্রিয় স্বাস্থ্য ম্যাগাজিনের সমীক্ষায় উঠে এসেছে, সেক্সের বিষয়ে ভারতীয় পুরুষরা একেবারে শেষের দিকে। ৩০টি দেশের ৫০, ৭৯৬ জন পুরুষদের উপর সমীক্ষা চালিয়ে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়।

সমীক্ষাটিতে দেখা গেছে, সেক্সের বিষয়ে প্রায় সব বিষয়েই ডাহা ফেল করেছেন ভারতীয় পুরুষরা। গোটা বিশ্বে যখন পুরুষরা দিনে অন্তত দুবার সেক্স করেন, সেখানে সপ্তাহে একেবারেরও কম সেক্স করেন ভারতীয়রা। যৌন সঙ্গির সংখ্যার বিচারেও বেশ পিছিয়ে ভারতীয় পুরুষরা। তালিকায় সবার শীর্ষে থাকা ক্রোয়েশিয়ার পুরষরা সপ্তাহে অন্তত ১৪ বার সেক্স করে থাকেন বলেও সমীক্ষায় উঠে এসেছে। সেক্সে বৈচিত্র্যহীনতাতে অবশ্য ভারতীয় পুরুষরা বেশ ভাল নম্বর পেয়েছেন। এখানে বাজিমাত করেছেন ক্রোটরা। আউটডোর সেক্সে লেটারমার্কস পেয়েছেন ক্রোয়েসিয়ান পুরুষরা।

পুল, পার্ক, গাড়িতে কৌশলে সেক্স করে মেয়েদের মন জিতে নিয়েছেন ক্রোয়েশিয়ান পুরুষরা। পুরুষ ও মহিলাদের মোট হিসাবে ধরলে এই তালিকায় সবার আগে ব্রিটিশরা। ব্রিটিশ মহিলারা সেক্সের বিষয়ে সবার আগে আছেন। সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে অন্তত ৬০ ভাগ ব্রিটিশ মহিলারা বলেছেন,তাঁরা ৯ জন পুরুষের সঙ্গে যৌনতায় অংশ নিয়েছেন।

তবে এই সমীক্ষায় সবচেয়ে তৃপ্তিদায়ক খবর ডাচ পুরুষরা পেয়েছেন। বিশ্বের মধ্যে একমাত্র নেদারল্যান্ডসের মহিলারা বলছেন, সেক্স করার পর তাঁরা দারুণরকম তৃপ্তি পেয়েছেন।

‘ম্যানস হেলথ’-এর সম্পাদক জামাল শাইক বলেছেন, অনেক তথ্য, পরিসংখ্যান, পরিশ্রমের পর এই তালিকা প্রকাশ করা হল। তালিকায় ভুলের সম্ভাবনা প্রায় নেই বলেও তিনি দাবি করেন। তবে তিনি বলেন, “একটা কথা পরিষ্কার গোটা বিশ্বই এখন সেক্স বিষয়টা নিয়ে দারুণ সিরিয়াস হয়েছে। সেক্স মানে যে শুধু দায়-দায়িত্ব নয়, জিনিসটা মজার, উপভোগ আর দারুণ তৃপ্তির সেটা গোটা বিশ্বই বুঝতে পারছে”।

Shortlink:

Q&A

You must be logged in to post a comment Login