৫০০ বছর আগের অক্ষত কিশোরী!

140922162352১৫ বছরের সেই মেয়েটি মারা যায় ৫০০ বছর আগে। কিন্তু মেয়ের চেহারায় যে শান্তির ছাপ তা দেখে মনে হয় সে যেকোন সময় আবার জেগে উঠবে।

৫০০ বছর আগে মারা যাওয়া পেরুর বিস্ময়কর ইনকা সম্প্রদায়ের ১৫ বছর বয়সী বালিকা ‘ল্য দোঞ্চেলা’ কে আবিষ্কার করেন একজন আর্জেন্টাইন-পেরুভিয়ান অভিযাত্রী।

তাঁর হাত দুইটি গোটানো ছিল এবং তাঁর মাথা সামনের দিকে ঝুঁকে থাকে। যার জন্য তাঁর চুলগুলো মুখের উপর পড়ে থাকে।

‘ল্য দোঞ্চেলা’ নামের এই বালিকার মমিটিকে ১৯৯৯ সালে বিস্ময়কর মাচুপিচু নগরীর লুলাইকো আগ্নেয়গিরির ৬,৭৩৯ মিটার (২২,১১০ ফুট) উঁচুতে তিনি আবিষ্কার করেন।

momiবিজ্ঞানী ও গবেষকরা বলেন, তার অক্ষত অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ দেখে মনে হচ্ছে ঔষধ বা নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তবে,চুল পরীক্ষা করেই তার মৃত্যুর সময় নির্ণয় করেন গবেষকরা।

ইতিহাসবিদরা বলছে, শিশু-কিশোরদেরকে সৃষ্টিকর্তাদের উদ্দেশে বলি দেওয়ার রেওয়াজ ছিল ইনকাদের। তারপর মারা যাওয়া শিশুদের স্রষ্টারই সম্মানে মমি করে রাখা হতো।

তাদের পাওয়া তথ্য মতে, সৃষ্টিকর্তার উদ্দেশে বলি দেওয়া শিশুদের হত্যার আগে সুষম খাবার খাইয়ে মোটা-তাজা করা হতো এবং সমাধিস্থলে পৌঁছানোর আগে শিশুদের ভীতি ও ব্যথা নাশক উন্মাদক পানীয় পান করানো হতো, তারপর তাদের হত্যা করা হতো।

Shortlink:

Q&A

You must be logged in to post a comment Login